শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৩, ০৩:৫৭ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
রঙিন ফুলকপি চাষ করে জীবন রাঙাতে চায় ঝিনাইগাতীর শফিকুল  ১নং কেন্দুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ সাইফুল ইসলাম খান সোহেল সফলতার সাথে ইউনিয়নের উন্নয়নমূলক কাজ করে আজ প্রথম বছর পেরিয়ে দ্বিতীয় বছরে পদার্পণ হাজীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বই বিতরণ কেন্দুয়া বাংলাদেশ উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দিলেন কেন্দুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ সাইফুল ইসলাম খান সোহেল কুটামনি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা নতুন বই পেয়ে উচ্ছ্বসিত কেন্দুয়া বাংলাদেশ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই বিতরন বকশীগঞ্জ আ.লীগ সভাপতির বাসায় দূর্ধষ ডাকাতি জামালপুরের মেষ্টা ইউনিয়নে বুদ্ধি প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণ, ধর্ষক চাচা গ্রেপ্তার জামালপুরে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ৩২তম বার্ষিক সদস্য সভা অনুষ্ঠিত কুটামনি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্র—ছাত্রীদের বিদায় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত
জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে হোটেলে খাবার গ্রহণকারী অসুস্থ্য একজনের চিকিৎসাধীন অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডেকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যু

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে হোটেলে খাবার গ্রহণকারী অসুস্থ্য একজনের চিকিৎসাধীন অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডেকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যু

শাওন মোল্লা, জামালপুর জেলা প্রতিনিধি: জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে হোটেলের ডাল-রুটি খেয়ে অসুস্থ্য অর্ধশতাধিক মানুষের মধ্যে গুরুতর একজনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (৮ জুুন) রাতে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইউনুস আলী (৫০) নামে ওই ব্যক্তির মৃত্যু হয়।

নিহত ইউনুস উপজেলার ভাটারা ইউনিয়নের ফুলবাড়িয়া গ্রামের মৃত অছিম শেখের ছেলে। বুধবার সকালে মৃতের বাড়িতে বৈঠকের পর তার লাশ দাফনের অনুমতি দিয়েছে পুলিশ।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও স্থানীয় সূত্র জানায়, সোমবার (৭ জুন) সকালে সরিষাবাড়ী পৌরসভার পঞ্চপীর বাজারের লালু মিয়ার হোটেলে আশেপাশের গ্রামের লোকজন নাস্তা করেন। সেখানে পচা-বাসি ডাল ও রুটি খেয়ে লোকজনের পেট ব্যথা, বমি ও পাতলা পায়খানা শুরু হয়। একপর্যায়ে তা ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে এবং রাত পর্যন্ত অর্ধশতাধিক অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন। গুরুতর কয়েকজনকে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নিপ্পন মণ্ডল জানান, জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ইউনুস আলীর অবস্থা গুরুতর হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মঙ্গলবার বিকেলে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। এরপর সেখান থেকে তাকে রাজধানীতে উন্নত চিকিৎসার জন্য স্থানান্তর করা হয়। অ্যাম্বুলেন্সে তোলার পরই তার মৃত্যু হয়।
এব্যাপারে সরিষাবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ মীর রকিবুল ইসলাম জানান, মৃত ইউনুসের পরিবারের কোনো অভিযোগ নেই— মর্মে তার ছেলে সোহেল বুধবার সকালে থানায় লিখিত এজাহার দিয়েছেন। তাই আইনগত ব্যবস্থা না নিয়ে লাশ দাফনের অনুমতি দেয়া হয়েছে।
স্থানীয়দের অভিযোগ, হোটেলের নিম্নমানের ও পচা-বাসি খাবারের কারণে এ অবস্থা হয়েছে। কিন্তু হোটেল মালিক লালু মিয়ার বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি প্রশাসন। সব হোটেলে নিয়মিত স্যানিটারি ইন্সপেক্টরের তদারকি থাকলে হোটেল মালিকরা নিম্নমানের খাবার বিক্রি করতে পারতো না বলে ভুক্তভোগীরা জানান।

এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিহাব উদ্দিন আহমদ বলেন, মৃতের পরিবার থেকে কোনো অভিযোগ না থাকলেও অপরাধ প্রমাণিত হলে নিরাপদ খাদ্য আইনে হোটেল মালিকের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এজন্য ইতোমধ্যেই জামালপুরের নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ ও স্যানিটারি ইন্সপেক্টর নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ল্যাবে পাঠিয়েছে। এছাড়া হোটেলটি বন্ধ ও মালামাল জব্দ করা হয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply




© এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY SheraWeb.Com