শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০২:১২ অপরাহ্ন

শিরোনাম
বাংলাদেশ উচ্চ বিদ্যালয়ে নবীন বরণ-জিপিএ ৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থী সংবর্ধনা রঙিন ফুলকপি চাষ করে জীবন রাঙাতে চায় ঝিনাইগাতীর শফিকুল  ১নং কেন্দুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ সাইফুল ইসলাম খান সোহেল সফলতার সাথে ইউনিয়নের উন্নয়নমূলক কাজ করে আজ প্রথম বছর পেরিয়ে দ্বিতীয় বছরে পদার্পণ হাজীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বই বিতরণ কেন্দুয়া বাংলাদেশ উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দিলেন কেন্দুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ সাইফুল ইসলাম খান সোহেল কুটামনি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা নতুন বই পেয়ে উচ্ছ্বসিত কেন্দুয়া বাংলাদেশ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই বিতরন বকশীগঞ্জ আ.লীগ সভাপতির বাসায় দূর্ধষ ডাকাতি জামালপুরের মেষ্টা ইউনিয়নে বুদ্ধি প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণ, ধর্ষক চাচা গ্রেপ্তার জামালপুরে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ৩২তম বার্ষিক সদস্য সভা অনুষ্ঠিত
জীবনের শেষ স্টেশনেই এখন হাঁটছি – অভিনেতা মাসুদ পারভেজ সোহেল রানা

জীবনের শেষ স্টেশনেই এখন হাঁটছি – অভিনেতা মাসুদ পারভেজ সোহেল রানা

স.স.প্রতিদিন বিনোদন ডেস্ক ।।

‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৯’র আজীবন সম্মাননা পাচ্ছেন বরেণ্য অভিনেতা মাসুদ পারভেজ সোহেল রানা। বর্তমানে এই অভিনেতা কাজ করছেন চিত্রনায়িকা কবরীর পরিচালনায় ‘এই তুমি সেই তুমি’ ছবিতে। চলচ্চিত্র ও সমসাময়িক ব্যস্ততা প্রসঙ্গে কথা বলেছেন তিনি।

শুরুতেই জানতে চাই আজীবন সম্মাননা প্রসঙ্গে, তার অনুভূতির কথা? উত্তরে সোহেল রানা বলেন, ‘যে কোনো প্রাপ্তিই সম্মানের ও ভালো লাগার। কিন্তু “আজীবন সম্মাননা” কথাটি শুনলেই মনে পড়ে, জীবনের শেষ প্রান্তে চলে এসেছি। আমি জানি জীবনের শেষ স্টেশনেই এখন হাঁটছি। এই “আজীবন সম্মাননা” শেষ সময়ের কথা স্মরণ করিয়ে দেয়। যাই হোক, এই প্রাপ্তির খবরে সবাই শুভেচ্ছা জানাচ্ছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘অনেকেই শুভেচ্ছা জানাতে বাসায় আসতে চেয়েছিলেন। কিন্তু এই করোনার সময় সবাইকে বাসায় থাকার আহ্বান জানিয়েছি। ঘরোয়াভাবেই আনন্দ ভাগাভাগি করতে বলেছি। সবাই দোয়া করবেন।’

দীর্ঘ বিরতির পর ‘এই তুমি সেই তুমি’ ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। ছবির কাজ শুরু করেছেন? উত্তরে তিনি বলেন, ‘ছবির কাজ ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে। তবে আমার অংশের কাজ এখনও হয়নি। কারণ এই করোনার সময় আমি শুটিং করতে ইচ্ছুক না। তাই নিশ্চিত করে বলতে পারছি না, কবে শুটিংয়ে অংশ নেব।’

এখন আর আপনাকে চলচ্চিত্রে খুব একটা দেখা যায় না। এর কোনো কারণ আছে কি? জানতে চাইলে সোহেল রানা বলেন, ‘উল্লেখ করার মতো তেমন কোনো কারণ নেই। এই বয়সে একটু নিজের মতো করে থাকতে চাই। তাছাড়া আমার অনেক বন্ধুই এখন শুটিং থেকে দূরে আছেন। বিশেষ অনুরোধে তাদের অভিনয়ে পাওয়া যায়। আবার কিছু বন্ধু তো না ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন। তাই সময়টা নিজের মতো করে কাটাতেই অভিনয় থেকে দূরে আছি।’

সঙ্গে যোগ করে তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের পাশের দেশের ইন্ড্রাস্টির কথা উল্লেখ করে বলতে হয়; এই বয়সের শিল্পীদের জন্য আলাদা করে চরিত্র তৈরি করা হয়। কিন্তু আমাদের দেশে হয় এর উল্টোটা। এই বয়সের জন্য তার চরিত্র হয় বাবার নয় চাচার। আমাদের দেশের নির্মাতারা বয়স্ক শিল্পীকে সঠিকভাবে উপস্থাপন করতে পারে না। যখন নির্মাতারা নতুন গল্প বলবেন, বয়স্ক শিল্পীদের জন্য আলাদা করে কাজের জায়গা তৈরি করে দিবেন। তখন হয়তো আমার মতো অনেকেই অভিনয় শুরু করবেন।’

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply




© এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY SheraWeb.Com