বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১১:০৫ অপরাহ্ন

শিরোনাম
বাংলাদেশ উচ্চ বিদ্যালয়ে নবীন বরণ-জিপিএ ৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থী সংবর্ধনা রঙিন ফুলকপি চাষ করে জীবন রাঙাতে চায় ঝিনাইগাতীর শফিকুল  ১নং কেন্দুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ সাইফুল ইসলাম খান সোহেল সফলতার সাথে ইউনিয়নের উন্নয়নমূলক কাজ করে আজ প্রথম বছর পেরিয়ে দ্বিতীয় বছরে পদার্পণ হাজীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বই বিতরণ কেন্দুয়া বাংলাদেশ উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দিলেন কেন্দুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ সাইফুল ইসলাম খান সোহেল কুটামনি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা নতুন বই পেয়ে উচ্ছ্বসিত কেন্দুয়া বাংলাদেশ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই বিতরন বকশীগঞ্জ আ.লীগ সভাপতির বাসায় দূর্ধষ ডাকাতি জামালপুরের মেষ্টা ইউনিয়নে বুদ্ধি প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণ, ধর্ষক চাচা গ্রেপ্তার জামালপুরে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ৩২তম বার্ষিক সদস্য সভা অনুষ্ঠিত
ভারতের গ্রামেও ছড়িয়ে পড়েছে করোনা

ভারতের গ্রামেও ছড়িয়ে পড়েছে করোনা

স.স.প্রতিদিন ডেস্ক ।।

ভারতে বৃহস্পতিবার করোনা ভাইরাস সংক্রমণে বৈশ্বিক রেকর্ড সৃষ্টি হয়েছে। এক দিনেই আক্রান্ত হয়েছে চার লাখের বেশি মানুষ। বাড়ছে মৃত্যুও।

কিন্তু এরই মধ্যে আতঙ্কের বিষয় হচ্ছে, বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম জনসংখ্যা অধ্যুষিত এই দেশটির গ্রাম এলাকায়ও করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। এসব এলাকায় চিকিৎসা সুবিধা অপ্রতুল বলে বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন। খবর রয়টার্সের

বৃহস্পতিবার ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৪ লাখ ১২ হাজার ২৬২ জন এবং মারা গেছেন ৩ হাজার ৯৮০ জন। মোট সংক্রমিত মানুষের সংখ্যা ২ কোটি ১০ লাখের বেশি এবং মারা গেছেন ২ লাখ ৩০ হাজার ১৬৮ জন।

তবে চিকিৎসা বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, সরকারি হিসাবের চেয়ে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা পাঁচ থেকে ১০ গুণ বেশি। ভারতে ১৩০ কোটির মধ্যে ৭০ শতাংশই বাস করে গ্রাম এলাকায়। মানব সানসাধান ইভাম মহিলা বিকাশ সংস্থার মাঠ পর্যায়ের সমন্বয়ক সুরেশ কুমার বলছিলেন, গ্রাম এলাকার পরিস্থিতি খুবই ভয়াবহ। উত্তর প্রদেশের প্রতি দুই বাড়ির একটিতে করোনায় মানুষ মারা যাচ্ছে। পর্যটন রাজ্য হিসেবে পরিচিত গোয়াতে প্রতি দুই জনে এক জন আক্রান্ত হচ্ছেন। বিভিন্ন রাজ্য করোনার বিধিনিষেধ দিলেও কেন্দ্রীয় সরকার দেশ জুড়ে লকডাউন দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে।

জীবন ও মৃত্যুর সিদ্ধান্ত

দিল্লির হলি ফ্যামিলি হাসপাতালে ২৬ বছর বয়সি ছাত্র রোহান আগারওয়ালকে চিকিত্সার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। সেখানে ২৭৫ প্রাপ্তবয়স্কের সুবিধা থাকলেও এখন সেখানে আছে ৩৮৫ জন। আগারওয়াল বলছেন, কে মারা যাবে এবং কে বাঁচবে সেই সিদ্ধান্ত নেন ঈশ্বর। আমরা তো দিতে পারি না, কারণ আমরা কেবলই মানুষ। কিন্তু সেই সিদ্ধান্ত আমাদের দিতে হচ্ছে।

ডাউনলোড করুন আমাদের মোবাইল এপ্স

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply




© এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY SheraWeb.Com