ঢাকা July 14, 2024, 7:42 pm
  1. Arts & EntertainmentCelebrities
  2. blog
  3. অন্যান্য
  4. অপরাধ
  5. আইন – আদালত
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আবহাওয়া
  8. উপ-সম্পাদকীয়
  9. কবিতা
  10. কৃষি
  11. কৃষি ও কৃষক
  12. কৌতুক
  13. খেলা ধূলা
  14. খেলাধুলা
  15. গণমাধ্যম
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মাদারগঞ্জে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বাড়িঘরে সন্ত্রাসী হামলা-ভাঙচুর ও লুটপাট

Link Copied!

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥
জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে জেলার মাদারগঞ্জ উপজেলার ৭নং সিধুলী ইউনিয়নের চরভাটিয়ানী মধ্যপাড়া গ্রামের মৃত আবুল কাশেমের পুত্র মোঃ গোলজার হোসেনের বসতবাড়ীতে প্রতিপক্ষের লোকজন ব্যাপক সন্ত্রাসী হামলা ভাঙচুর ও লুটপাট চালিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
ভুক্তভোগী গোলজার হোসেনের অভিযোগসূত্রে জানা গেছে, গত ২ এপ্রিল শুক্রবার দুপুর সোয়া একটার দিকে গ্রামের সবাই যখন জুম্মার নামাজে মসজিদে ঠিক সে সময় একই গ্রামের মৃত শামছুল হকের ছেলে লাভলু ও মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর, মৃত দেলোয়ার হোসেনের পুত্র শাহ্ আলম ও শাহ্ আলী, মৃত গিয়াস উদ্দিনের পুত্র ফরহাদ হোসেন ও নজরুল, শামছ উদ্দিনের ছেলে বাদল ও মঞ্জু, মৃত মিয়ার উদ্দিনের পুত্র গোলজার, মৃত জুলহাস উদ্দিনের পুত্র ফরিদ, ফরিদের পুত্র জাহাঙ্গীর, আজাহার আলীর পুত্র ফারুক, রশিদের পুত্র মামুন, মৃত জালালের পুত্র ওয়াহাব ছাড়াও অজ্ঞাত পরিচয় আরও ১৫ জন হকিষ্টিক, রামদা, লাঠি, লোহার রডসহ দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে অতর্কীতে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর ও লুটপাট চালিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসময় ৬৪ফিট বিল্ডিং ঘরের ৫টি কক্ষের সকল জানালার থাই গ্লাস ভেঙ্গে ফেলে সন্ত্রাসীরা, এছাড়া প্রতিটি ঘরের সকল আসবাবপত্র, তৈজসপত্রসহ সকল কিছু ভেঙ্গে গুড়িয়ে ফেলে, আলমীরার তালা ভেঙ্গে ৩ ভরি ওজনের স্বর্ণালংকার ও নগদ ৫০হাজার টাকা লুট করে সন্ত্রাসীরা। এসময় গোলজার ও তার পরিবারের সকল পুরুষ সদস্য জুম্মার নামাজে মসজিদে ছিল। বাড়িতে ছিল তার পক্ষাঘাতগ্রস্ত ভগ্নিপতি মোঃ দুলাল মিয়া ও তার স্ত্রী রেবেকা বেগম। তার পক্ষাঘাতগ্রস্ত ভগ্নিপতি মোঃ দুলাল মিয়াকে ভাঙ্গা কাঁচের হাত থেকে বাঁচাতে তার স্ত্রী রেবেকা বেগম তাকে তুলে অন্যত্র সরিয়ে নিতে না পেরে কাঁথা দিয়ে ঢেকে দেয় ও নিজে ভয়ে তটস্থ হয়ে পালিয়ে যায়। নারকীয় তান্ডবের বিভীষিকা প্রত্যক্ষ করে অসাড় হয়ে পড়ে ছিল পক্ষাঘাতগ্রস্ত রোগী মোঃ দুলাল মিয়া। এ প্রতিবেদকের কাছে মধ্যযুগীয় তান্ডবলীলার বর্ণনা দিতে গিয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে বারে বারে চোখ মুছছিলেন।


এ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক হতাশা ও তীব্র ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে। এ ঘটনার সংবাদ পেয়ে সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন শ্যামগঞ্জ কালিবাড়ি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এস.আই মোশাহেদ খান। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলা বা কেউই গ্রেফতার হয়নি। জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে জুম্মার নামাজের সময় অতর্কীতে বাড়িঘরে সন্ত্রাসী হামলা, ব্যাপক ভাঙচুর ও লুটপাটের নিন্দা জানিয়ে যথাযথ বিচার দাবি করেছেন ভুক্তভোগী পরিবারটি।