শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৪:০০ অপরাহ্ন

শিরোনাম
বাংলাদেশ উচ্চ বিদ্যালয়ে নবীন বরণ-জিপিএ ৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থী সংবর্ধনা রঙিন ফুলকপি চাষ করে জীবন রাঙাতে চায় ঝিনাইগাতীর শফিকুল  ১নং কেন্দুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ সাইফুল ইসলাম খান সোহেল সফলতার সাথে ইউনিয়নের উন্নয়নমূলক কাজ করে আজ প্রথম বছর পেরিয়ে দ্বিতীয় বছরে পদার্পণ হাজীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বই বিতরণ কেন্দুয়া বাংলাদেশ উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দিলেন কেন্দুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ সাইফুল ইসলাম খান সোহেল কুটামনি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা নতুন বই পেয়ে উচ্ছ্বসিত কেন্দুয়া বাংলাদেশ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই বিতরন বকশীগঞ্জ আ.লীগ সভাপতির বাসায় দূর্ধষ ডাকাতি জামালপুরের মেষ্টা ইউনিয়নে বুদ্ধি প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণ, ধর্ষক চাচা গ্রেপ্তার জামালপুরে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ৩২তম বার্ষিক সদস্য সভা অনুষ্ঠিত
মেষ্টার চর কায়দা ভাদুরীপাড়ায় সহদোর নিখোঁজ ভাই হেলাল উদ্দিনের ভিটে মাটি কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা

মেষ্টার চর কায়দা ভাদুরীপাড়ায় সহদোর নিখোঁজ ভাই হেলাল উদ্দিনের ভিটে মাটি কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥
জামালপুর সদর উপজেলার ১৩নং মেষ্টা ইউনিয়নের চর কায়দা ভাদুরীপাড়া গ্রামের মৃত অছিমত উদ্দিনের পুত্র বেলাল উদ্দিন কর্তৃক সহদোর নিখোঁজ ভাই হেলাল উদ্দিনের ভিটে মাটি কেড়ে নেওয়ার চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে।
মামলা সূত্রে জানা যায়, জামালপুর সদর উপজেলার ১৩নং মেষ্টা ইউনিয়নের চর কায়দা ভাদুরীপাড়া গ্রামের মৃত অছিমত উদ্দিনের পুত্র ২০০৭ ইং সালে বেলাল উদ্দিন এবং হেলাল উদ্দিন নিজ বাড়ী থেকে একসাথে হাজীপুর বাজারে আসেন। সেই দিন থেকেই নিখোঁজ হয় হেলাল উদ্দিন। অদ্যপর্যন্ত হেলাল উদ্দিনের কোন খুঁজ পাই নি হেলাল উদ্দিনের অসহায় ওই পরিবারের সদস্যরা। অপর দিকে বেলাল উদ্দিনের ভাই হেলাল উদ্দিন নিখোঁজ হওয়ার পর হতে ভাইয়ের সম্পদ আত্মসাৎ করার উদ্দেশ্যে প্রতিনিয়ত হেলাল উদ্দিনের পরিবারের সদস্যদেরকে হয়রানী করে আসছে বেলাল উদ্দিন। এ নিয়ে হেলাল উদ্দিনের কন্যা মোছাঃ হিরা খাতুন বিজ্ঞ মামলা আমলে নেওয়ার আদালত জামালপুর সদরে একটি মামলা দায়ের করেছেন। উক্ত মামলায় হিরা খাতুন অভিযোগ করে বলেন, আমার পত্রিক সম্পত্তি আমার চাচা বেলাল উদ্দিন জোরপূর্বক দখলের অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে দীর্ঘদিন যাবৎ। আমার পিতা মারা গিয়েছে মনে করে দীর্ঘদিন যাবৎ আমার তিন বোন ও মাকে নিয়ে খুবই কষ্টে দিন যাপন করে আসছি আমরা। যার কারণে পিতার সম্পত্তি হতে ১০ শতাংশ জমি বিক্রি করি সংসার চালানোর প্রয়োজন মনে করে। আমরা উক্ত জমি বিক্রি করে দেই কিন্তু প্রতারক চাচা বেলাল উদ্দিন আমাদের কে হয়রানী করার উদ্দেশ্যে ঐজমি বিক্রির ঘটনাকে কেন্দ্র করে একটি মামলা দায়ের করে যা বর্তমানে বিচারাধিন রয়েছে। এ বিষয়ে স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘ ১৪ বছর পূর্বে হেলাল উদ্দিন হারিয়ে গেলেও আজো তার কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। সে জীবিত না মৃত কেউ বলতে পারে না। তবে হেলাল উদ্দিন হারিয়ে যাওয়ার পর থেকে খুবই কষ্টে দিন যাপন করে আসছে হেলাল উদ্দিনের পরিবারের সদস্যরা। অপর দিকে বেলাল উদ্দিনের মা তার নিজ বাড়ি থেকে প্রাপ্ত সম্পদের অংশ পেয়ে তা বিক্রি করে নগদ ৯০ হাজার টাকা এনে বেলালের কাছে জমা রাখেন। বেলাল তার মা’র জমা রাখা ৯০ হাজার টাকা নিজেই তা সম্পূর্ণ আত্মসাত করে। অথচ এই টাকার অংশ রয়েছে হেলালের পরিবারের সদস্যদেরও। তাদেরকে একটি টাকাও দেওয়া হয়নি। তাদের ভিটে মাটি থেকে উচ্ছেদ করার জন্য বেলাল প্রতিনিয়ত বিভিন্নভাবে অপচেষ্টা চালিয়ে আসছে। এনিয়ে বেশ কয়েকবার গ্রামে সালিশ হলেও বেলাল কখনোই তা মেনে নেয় নি। উল্টো হেলালের জমি দখলের অপচেষ্টা করে আসছে। যার কারণে হেলাল উদ্দিনের অসহায় পরিবারের সদস্যরা আইনের আশ্রয় নিয়েছেন বলে জানা যায়। <!- start disable copy paste –></!->

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply




© এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY SheraWeb.Com