বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১১:৩৩ অপরাহ্ন

শিরোনাম
বাংলাদেশ উচ্চ বিদ্যালয়ে নবীন বরণ-জিপিএ ৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থী সংবর্ধনা রঙিন ফুলকপি চাষ করে জীবন রাঙাতে চায় ঝিনাইগাতীর শফিকুল  ১নং কেন্দুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ সাইফুল ইসলাম খান সোহেল সফলতার সাথে ইউনিয়নের উন্নয়নমূলক কাজ করে আজ প্রথম বছর পেরিয়ে দ্বিতীয় বছরে পদার্পণ হাজীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বই বিতরণ কেন্দুয়া বাংলাদেশ উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দিলেন কেন্দুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ সাইফুল ইসলাম খান সোহেল কুটামনি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা নতুন বই পেয়ে উচ্ছ্বসিত কেন্দুয়া বাংলাদেশ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই বিতরন বকশীগঞ্জ আ.লীগ সভাপতির বাসায় দূর্ধষ ডাকাতি জামালপুরের মেষ্টা ইউনিয়নে বুদ্ধি প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণ, ধর্ষক চাচা গ্রেপ্তার জামালপুরে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ৩২তম বার্ষিক সদস্য সভা অনুষ্ঠিত
যেসব কারণে টিভি তারকাদের সিনেমায় অনীহা

যেসব কারণে টিভি তারকাদের সিনেমায় অনীহা

স.স.প্রতিদিন ডেস্ক ।।

ছোট পর্দার বেশ কয়েকজন তারকা আছেন, দর্শক যাঁদের বড় পর্দায় দেখতে আগ্রহী। প্রযোজক-পরিচালকদেরও তাঁদের নিয়ে কাজ করার আগ্রহ রয়েছে। কিন্তু ওই তারকাদের নানা কারণে বড় পর্দা বা সিনেমায় কাজ করার আগ্রহ কম। কেউ হয়তো নিজেদের পছন্দসই কাজ পাচ্ছেন না, কেউবা বাড়তি সময় দিতে চান না। ছোট পর্দার তারকাদের সেই তালিকায় আছেন অপূর্ব, আফরান নিশো, মেহ্জাবীন চৌধুরী, তানজিন তিশা, সাবিলা নূর, সাফা কবির প্রমুখ। টিভি নাটক, ওয়েব সিরিজ ও ওয়েব ফিল্ম নিয়ে তাঁদের ব্যস্ততা সীমাহীন। তারপরও বড় পর্দা হাতছানি দেয়। কিন্তু সেই ডাকে সাড়া দেওয়া হয় না তাদের। চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের অনেকেই মনে করেন, এখনকার ঢালিউডে শিল্পীসংকট আছে। ছোট পর্দার জনপ্রিয় এই তারকারা বড় পর্দায় কাজ শুরু করলে সেই সংকট কিছুটা নিরসন হবে। তাঁদের বিপুল ভক্ত-অনুরাগী রূপান্তরিত হবেন সিনেমার দর্শকে। কিন্তু কেন সিনেমায় আসছেন না তাঁরা? জানতে চাওয়া হয় এই তারকাদের কাছে।অভিনেতা অপূর্ব সিনেমায় অভিনয় করেছিলেন। গ্যাংস্টার তাঁর প্রথম এবং এখন পর্যন্ত শেষ ছবি। ২০১৪ সালে মুক্তি পায় ছবিটি। এরপর তাঁকে আর সিনেমায় দেখা যায়নি। তিনি জানালেন কোনো পরিচালকই এখন পর্যন্ত যথাযথভাবে প্রস্তাব দেননি তাঁকে। কেউ দিলেও সেগুলো নানা কারণে করা হয়নি। তা ছাড়া ছোট পর্দায় ব্যস্ততা বেড়ে যাওয়াও সিনেমায় না যাওয়ার অন্যতম কারণ। অপূর্ব বলেন, ‘কাজ করতে করতে ছোট পর্দার মানুষগুলোর সঙ্গে নিবিড় সম্পর্ক তৈরি হয়ে গেছে। অঙ্গনটি ছেড়ে নতুন জায়গায় যাব, সেখানকার মানুষগুলো আমাকে কীভাবে নেবেন, তাঁরা আদৌ গ্রহণ করবেন কি না—এসব চিন্তা থেকেই সিনেমায় ততটা আগ্রহ হয়নি।’ এদিকে প্রায় এক বছর ধরে শোনা যাচ্ছিল, সিনেমায় অভিনয় শুরু করতে যাচ্ছেন আফরান নিশো। এরই মধ্যে ছোট পর্দায় কাজের ব্যস্ততা বহুগুণ বেড়েছে তাঁর। এ অবস্থায় কি সিনেমায় কাজ করতে পারবেন তিনি? এ প্রশ্নে নিশো বলেন, ‘বছরখানেক ধরে কথাবার্তা চলছে। করোনার কারণে কথা আর এগোয়নি। আমি সব সময়ই বলে আসছি, সিনেমায় নাম লিখিয়ে নিজেকে প্রস্তুত করতে চাই না, বরং প্রস্তুত হয়েই সিনেমায় নামতে চাই। দেখা যাক কী হয়।’ বাণিজ্যিক ধারার সিনেমায় অনীহা থাকলেও বিকল্পধারার ছবিতে কাজ করতে আগ্রহী মেহ্‌জাবীন চৌধুরী। ভালো গল্প বা চৌকস পরিচালকদের কাছ থেকে উপযুক্ত প্রস্তাব পেলে কাজ করতেন তিনি। মেহ্‌জাবীন বলেন, ‘বাণিজ্যিক ধারার ছবিতে কাজ করব না। একটু ভিন্ন ধরনের ছবিতে কাজের আগ্রহ আছে আমার। তবে অবশ্যই পছন্দের পরিচালক হতে হবে।’ প্রস্তাব আসে না? তিনি বলেন, ‘আসে। তবে বাণিজ্যিক ছবির।’ স্বপ্ন থাকলেও চলচ্চিত্রে কাজ শুরু করার আস্থা এখনো তৈরি করতে পারেননি বলে জানালেন সাফা কবির। ২০১৬ সাল থেকে সিনেমার প্রস্তাব পেয়ে আসছেন, তবু কাজ করা হয়নি এখনো। সাফা বলেন, ‘আমার মনে হয় সব অভিনয়শিল্পীরই স্বপ্ন থাকে, একদিন বড় পর্দায় কাজ করবেন। আমারও আছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত পছন্দসই গল্প বা পরিচালক পাইনি, যাঁর ওপর আস্থা রেখে বড় পর্দায় প্রথম কাজটি করতে পারি।’ জানালেন, কলকাতার বেশ কয়েকজন পরিচালকের সঙ্গে কথা হয়েছিল, কিন্তু গল্পগুলো টানেনি তাঁকে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply




© এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY SheraWeb.Com