শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১২:৪১ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
বাংলাদেশ উচ্চ বিদ্যালয়ে নবীন বরণ-জিপিএ ৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থী সংবর্ধনা রঙিন ফুলকপি চাষ করে জীবন রাঙাতে চায় ঝিনাইগাতীর শফিকুল  ১নং কেন্দুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ সাইফুল ইসলাম খান সোহেল সফলতার সাথে ইউনিয়নের উন্নয়নমূলক কাজ করে আজ প্রথম বছর পেরিয়ে দ্বিতীয় বছরে পদার্পণ হাজীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বই বিতরণ কেন্দুয়া বাংলাদেশ উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দিলেন কেন্দুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ সাইফুল ইসলাম খান সোহেল কুটামনি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা নতুন বই পেয়ে উচ্ছ্বসিত কেন্দুয়া বাংলাদেশ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই বিতরন বকশীগঞ্জ আ.লীগ সভাপতির বাসায় দূর্ধষ ডাকাতি জামালপুরের মেষ্টা ইউনিয়নে বুদ্ধি প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণ, ধর্ষক চাচা গ্রেপ্তার জামালপুরে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ৩২তম বার্ষিক সদস্য সভা অনুষ্ঠিত
৯০ শতাংশের বেশি কার্যকর নোভাভ্যাক্সের করোনা ভ্যাকসিন 

৯০ শতাংশের বেশি কার্যকর নোভাভ্যাক্সের করোনা ভ্যাকসিন 

হাকিকুল ইসলাম খোকন, যুক্তরাষ্ট্র সিনিয়র প্রতিনিধি: মার্কিন কোম্পানি নোভাভ্যাক্সের তৈরি করোনাভাইরাস ভ্যাকসিন ৯০ শতাংশের বেশি কার্যকর বলে দাবি করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র ও মেক্সিকোতে তৃতীয় ধাপের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে এ ফল পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে নোভাভ্যাক্স। সোমবার (১৪ জুন) নোভাভ্যাক্স এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র ও মেক্সিকোর প্রায় ৩০ হাজার স্বেচ্ছাসেবীর উপর নোভাভ্যাক্স ভ্যাকসিনের শেষ ধাপের ট্রায়াল চালানো হয়। এতে দেখা গেছে, ভ্যাকসিনটি করোনার সকল ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে কার্যকর প্রতিরোধ গড়ে তুলছে। ফলে যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ভ্যাকসিনটি অনুমোদন পাওয়ার রাস্তা সুগম হলো।

নোভাভ্যাক্সের রিসার্স অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট বিভাগের প্রধান ডা. গ্রেগরি গ্লেন রয়টার্সকে বলেন, ভ্যাকসিনটি উচ্চ ঝুঁকিতে থাকা স্বেচ্ছাসেবীদের ক্ষেত্রে ৯১ শতাংশ এবং মাঝারি ও গুরুতর রোগীদের ক্ষেত্রে সংক্রমণ ঠেকাতে শতভাগ কার্যকর। এটি মূলত করোনার সকল ধরণের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলে। নোভাভ্যাক্সের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, প্রতি মাসে ১০ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন তৈরির পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। বছরের শেষ নাগাদ এ পরিমাণ বেড়ে মাসে ১৫ কোটি ডোজে দাঁড়াবে বলেও জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

নোভাভ্যাক্স আরও জানিয়েছে, অন্যান্য কিছু ভ্যাকসিনের মতো এই ভ্যাকসিন অতি নিম্ন তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করার প্রয়োজন নেই। নোভাভ্যাক্সের ভ্যাকসিন ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস থেকে মাইনাস ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করা যাবে। ফলে স্বল্প ও মধ্যম আয়ের দেশগুলোতে এ ভ্যাকসিন সরবরাহ অধিকতর সহজ হবে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply




© এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY SheraWeb.Com